গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার পূর্নাঙ্গ গাইডলাইন

গ্রাফিক্স ডিজাইন কি‌? গ্রাফিক্স ডিজাইন কিভাবে শিখব

গ্রাফিক্স ডিজাইন হলো আপনার চিন্তাশক্তি ধারণা দক্ষতা ব্যবহার করে কোন ছবি বা টেক্সটের মাধ্যমে এমন একটি চিত্র তৈরি করা যেটা আপনার চিন্তা শক্তি বা ধারণা শক্তিকে সম্পূর্ণভাবে প্রকাশ করে। সহজ কথায় বলতে গেলে আপনার চিন্তা শক্তি বা ধারণা শক্তিকে সুন্দর করে প্রকাশ করার জন্য যে যে ছবিটা কে তৈরি করা হয় সেটাই গ্রাফিক্স ডিজাইন। 

গ্রাফিক্স ডিজাইন কি কি শেখানো হয়

গ্রাফিক ডিজাইন এর মধ্যে অনেকগুলো ভাগ আছে। যেমন ধরুন লোগো তৈরি করা, কোন কার্টুন সিনেমার কার্টুন তৈরি করা, কোন সিনেমার ব্যাকগ্রাউন্ড তৈরি করা, কোন কোম্পানির জন্য বিজ্ঞাপন তৈরি করা ইত্যাদি।

বিভিন্ন গেমের মধ্যে যেসকল অ্যানিমেশন করা হয় সবই করা হয় গ্রাফিক্স ডিজাইন এর মাধ্যমে।

গ্রাফিক্স ডিজাইন কিভাবে শিখব

১. ইচ্ছাশক্তি 

গ্রাফিক্স ডিজাইন করতে আপনার সর্বপ্রথম যেটা প্রয়োজন সেটা হচ্ছে ইচ্ছাশক্তি। গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার জন্য আপনার ইচ্ছাশক্তি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ইচ্ছাশক্তির না থাকলে গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে পারবেন না (এটা যদিও সব কাজের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য)।

২. চিন্তাশক্তি বা ধারণা করার ক্ষমতা

আপনার একটা ধারণা করার ক্ষমতা এবং চিন্তা করার ক্ষমতা থাকতে হবে এইযে এই ডিজাইন টা এমন করলে ভালো হয় ওইটা অমন করলে ভালো হয়, এটা এই ভাবে করলে মানুষ সহজে বুঝবে। 

৩. কঠিন পরিশ্রম করার প্রচেষ্টা 

আপনাকে অবশ্যই এর পেছনে অনেক সময় দিতে হবে। সময় যদি না দেন তাহলে শিখতে পারবেন না। 

আর একটা জিনিস সেটা হলো একটা ডিভাইস। গ্রাফিক্স ডিজাইনের জন্য আপনাকে অবশ্যই একটা ভালো মানের ডিভাইস ব্যবহার করতে হবে।

গ্রাফিক্স ডিজাইন শেখার পূর্নাঙ্গ গাইডলাইন

আপনার জীবনের সঙ্গী হচ্ছে Adobe এর প্রোডাক্ট। শুরু করবেন Adobe Illustrator, Adobe Photoshop দিয়ে।

এরপর প্রিমিয়ার প্রো, adobe XD, Adobe After Effects নিয়ে কাজ করবেন।

কোনটা কখন সংক্ষেপে যদি বলি,

AI এ করবেন বিজনেস কার্ড, লোগো, টিশার্ট, লিফলেট এইসব জিনিস

PS এ ছবি ম্যানিপুলেশন, এডীট, মাস্কিং।

XD is for UI/UX + website design & Mobile App design

Premier Pro is for Video Editing

After Effects is for motion graphics, animation, video editing.

সুন্দর করে নিচের লিংক থেকে সফটওয়্যার (আপাতত শুধু AI and PS লাগবে) নামিয়ে নিন।

Adobe Illustrator CC 2019 – v23.0.3 [Pre-Activated][1.8 GB]

https://drive.google.com/uc…

Adobe Photoshop Lightroom Classic CC 2019 – v8.3.1 [Pre-Activated][1.2GB]

https://drive.google.com/uc…

দুইটাই প্রি এক্টিভেটেড। ক্রাক ট্রাক এর ঝামেলা নেই। ইন্সটল হয়ে যাবে কোনো ঝামেলা ছাড়া।

এখনই টিউটোরিয়াল দেখার কোনো দরকার নাই। মার্কেট প্লেসে কাজ করতে হলে খুব সুইফট কাজ করতে হয়। তাই নিজে একটু টুলস গুলো দেখেন। নাড়াচাড়া করেন। গোলমাল পাকায় ফেললে উপরে রিসেট লেয়াউট মেনু পাবেন।

সমস্যা নাই। টুল এর নাম লিখে লিখে সার্চ দিবেন আর কিভাবে কোন টুল দিয়ে কাজ করে এইটা জানবেন। আপনি ৫০% গ্রাফিক ডিজাইনার হয়ে গেছেন। এইটাই বেসিক।

প্রতিদিন শর্টকাট মুখস্ত করবেন। মাউসের ক্লিক করলে আবার ফিরে এসে শর্টকাট প্র্যাকটিস করবেন। কইত্থে মুখস্ত করবেন

https://helpx.adobe.com/…/default-keyboard-shortcuts.html

https://helpx.adobe.com/…/default-keyboard-shortcuts.html

এই দুই লিংক হবে আপনার বন্ধু।

নড়াচাড়া এমন করবেন দুইটা সফটওয়ার নিয়া পাক্কা এক সপ্তাহ। শর্টকাট মুখস্ত প্রতিদিন পাশাপাশি রাখবেন। পাক্কা ১০০% গ্রাফিক ডিজাইনার হইলেও।

ইউটিউবে যাবেন, সার্চ দিবেন Adobe Illustrator Tutorial বাংলায় চাইলে লেখবেন Adobe Illustrator Tutorial Bangla, সার্চ ফিল্টার দিবেন প্লেলিস্ট মোডে, চালায় চালায় দেখবেন কে ভালো বুঝায়। যারে ভালো লাগে তার প্লেলিস্ট সেভ করে রাখবেন। Same for photoshop tutorial.

এমন করে আপনি ২ সপ্তাহ টিউটোরিয়া দেখবেন, আর বেটারা টিউটোরিয়ালে যা করায় তা তা করবেন।

এখন আপনি মোটামুটি বুঝেন। খুঁজে খুঁজে ইউটিউব থেকে এবার একটু advanced channel খুঁজে বের করবেন। মনে রাখবেন, শিখার টাইম শেষ, এইবার আপনার নিজেকে একটু ঝালাই করার টাইম। আমাকে সাজেস্ট করতে বললে https://www.youtube.com/channel/UCMrvLMUITAImCHMOhX88PYQ এইটা দেখতে বলবো। পাশাপাশি আপনার ইউটিউবে ততদিনে আপনারে ভালো ভালো চ্যানেল দেখাবে যেগুলা আপনার জন্য প্রযোজ্য।

আপনি এখন ৬০% গ্রাফিক ডিজাইনার। এখন এইটারে ৭০% করতে হলে আপনারে দুইটা কাজ করতে হবে, ১)ডিজাইন অনেক মন দিয়া দেখবেন। খুব মন দিয়া। গোয়েন্দাগিরি করবেন। ক্যানভা আর পিন্টারেস্ট এই দুইটা app নামাবেন। ডিজাইন দেখবেন আর খেয়াল করবেন কোন কোন কালার একসাথে দিলো, আর কিভাবে জিনিসপত্র ক্যানভাসে সাজাইলো। এই দুইটা মাস্ট।

আর ২) যেই যেইটা মনে ধরবে, ডিজাইন ওই গুলা সেম কপি করবেন। কপি করে কোথাও আপলোড দিবেন না। বিশেষ করে পোর্টফোলিওতে। তাইলে কিন্তু ধরা খাবেন। খালি প্র্যাকটিস করবেন মন ভরে। আর কিছু না।

আমি কিছু কপির জন্য জিনিস দিয়ে সাহায্য করতে পারি।গ্রাফিক রিভারের কিছু রিসোর্স দিলাম এই লিংকে http://at.arabtube.tv/gr/…

খালি দেখবেন আর করবেন। কপি করবেন ১ মাস। এই কপির চক্করে আপনার মধ্যে তৈরী হবে কালার সেন্স, ফন্ট সিলেকশন আর লে আউট। ফাঁকি মেরে এই স্টেপ বাদ দিলে ডিজাইন সেন্স আসবে না। ডিজাইন হবে খারাপ। আপনি এখন ৭০% গ্রাফিক ডিজাইনার। অভিনন্দন।

এখন শুরু হবে ৭০ থেকে ৮০ এর খেলা, আপনি একটু একটু নিজে নিজে চিন্তা করে ডিজাইন করবেন। কইবেন ভাই আমার তো ক্লাইন্ট নাই। কি ডীজাইন করবো? নামিদামি কোম্পানিরে শোয়ায় দেন, কেম্নে? রিডিজাইন করেন মাথায় কিছু না আসলে। ফেসবুক এপ নতুন ভাবে মনের মাধুরী মিশায়ে করবেন। আপল্যাব নামের এক ওয়েবসাইটে মানুষ চ্যালেঞ্জ নেয়।

সেগুলা করবেন। বাসায় যেই যেই কোম্পানির জিনিস ইউজ করেন তাদের লোগো চিন্তা করেন নিজের মতো। করে বানান। সুন্দর না হওয়া পর্যন্ত বানাইতে থাকেন।

আপনি এখন আপনার একটা পোর্টফোলিও বানাবেন। dribbble.com আর behance.net এ গিয়া। সুন্দর সুন্দর আইডি ফলো করবেন যাদের বানানো জিনিস পপুলার।

আপনি নিজে চিন্তা করে যা যা বানাবেন এইখানে আপলোড দিবেন। খারাপ ভাল যা ই হোক, নিজের জিনিস হইলেই আপলোড।

১ সপ্তাহ রেগুলার কাজ করেন। প্রতিদিন আপলোড দেন। খুব সিম্পল কিছু যেটা ১ ঘন্টায় করা যায়। দেখবেন ম্যাজিক। ১ সপ্তাহ আগের ডিজাইন আর ১ সপ্তাহ পরের ডিজাইন এ আকাশ পাতাল তফাত। এভাবে ১ সপ্তাহ বাড়ায়ে ২ সপ্তাহ করলে দেখবে আকাশ আর পাতালের তফাত আরো বাড়ছে।

এখন আপনি একজন গ্রাফিক ডিজাইনার। যেহেতু ভালোর কোনো শেষ নাই, তাই আপনি ইউটিউবে প্রতিদিন নতুন নতুন ট্রিক্স দেখেন, প্রতি ৩ দিনে একটা ডিজাইন করেন শুধু নিজের অগ্রগতির জন্য, আর প্রতিদিন ওয়েবসাইট ঘেটে ঘেটে ইন্সপিরেশন নেন।

এভাবে আপনি প্রতিদিন নিজেকে অতিক্রম করছেন। তাহলে আজ আমরা জানলাম গ্রাফিক্স ডিজাইন কিভাবে শিখব ।

আশা করি আপনি ২মাস কঠোর পরিশ্রম আপমি একজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার হতে পারবেন ।

শুভকামনা।

One comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *